RSS agenda to use Hindu Refugees to win Bengal and its betryal!

RSS is adamant to misuse the Bengali Hindu partition victim refugees in Bengal and all over the country as they used them in Assam....

Palash Biswas

Eminent Bengali writer perfectly explains RSS Agenda of Hindutva to trap partition victim Bengali Refugees whom NDA government led by Bajpayee deprived of citizenship declaring them illegal migrants with Citizenship Amendment act and recently introduced a bill to grant citizenship to Hindu Bengali refugees which has never intended to be passed or even passes, never to be implemented because of its constitutional flaws. RSS is trying to make Bengali refugees tame Vote Bank and it is proved better in Assam where Refugee leaders have been arrested demanding citizenship .RSS is adamant to misuse the Bengali Hindu partition victim refugees in Bengal and all over the country as they used them in Assam.

Only recently Supreme Court Advocate AmbiKa Ray trying to bail out the refugees from Assam jail has been arrested. Now eminent writer Kapil Krishna Thakur reacts thus:

Kapil Krishna Thakur wrote:

ওরা তোমার বাড়িতে যাবে। গিয়ে বলবে, হিন্দুদের এক হওয়া খুব দরকার। তুমি বাঙালি রিফুজিদের কথা তুললে তারা বলবে, দেশছাড়াদের কথা আমরা ছাড়া আর কে ভাবছে? এই দেখ না, লোকসভায় বিল আনছি। আগের সর্বনাশা আইনটা যে ওরাই বানিয়েছিল, সেটা বেমালুম চেপে যাবে।…. ওরা তোমার বাড়িতে যাবে। তুমি দলিত সমাজের মানুষ হলে বলবে, কোনও ভেদাভেদ নেই, চলো, সব ভারতবাসী আমরা এক। যেই তুমি ওদের কথায় ভুলে, ভোটে ওদের জিতিয়ে দেবে, অমনি একটা সাহারণপুর (উত্তর প্রদেশ) ঘটাবে। দলিতরা আম্বেদকর জয়ন্তী কেন করবে, সেই অপরাধে খুন, জখম হয়ে গ্রাম ছাড়া হবে। তাদের মেয়েরা নির্বিচারে ধর্ষণ আর খুন হতে থাকবে। নয়তো কুশীনগরের ঘটনা ঘটবে। দলিতরা যে ঘৃণার বস্তু, সেটা বোঝাবার জন্য বলা হবে, ভালো করে সাবান-শ্যাম্পু দিয়ে চান করে , সেন্ট মেখে, নতুন জামা-কাপড় না পরে এলে মুখ্যমন্ত্রীর সাথে দেখাই হবে না। আর উদ্বাস্তু হিন্দু প্রেমের মহিমা কত গভীর, সেটা বুঝতে হলে আসামের দিক তাকাতে হবে। আসামের বাঙালি হিন্দু উদ্বাস্তুরা ওদের কথায় ভুলে, ঢেলে ভোট দিয়ে ওদের গদিতে বসিয়ে দিয়েছে। তারপর শিলাপাথরে জমায়েত হয়ে ওরা যেই সরকারের প্রতিশ্রুতি পালনের দাবি তুলেছে, অমনি সাজানো মামলায় নিরপরাধ বাঙালি সমাজকর্মীদের জেলে ভরে এখন উগ্রপন্থী তকমা সেঁটে দিয়েছে। হায়, হিন্দু-উদ্বাস্তু প্রেমের কী নমুনা!.... ওরা তবু এ সব না জানার ভান করে তোমার বাড়ি যাবে। তুমি চা-বিস্কুট খাইয়ে সোজা ভাষায় শুধু না-ই বলবে না, এবার থেকে তোমারও কাজ হলো ঘরে ঘরে গিয়ে ওদের এই কীর্তির কথা সবার কাছে বলা। যাতে আরও বেশি মানুষের সর্বনাশ করার সুযোগ ওরা না পায়। চলো শুরু করা যাক।

हस्तक्षेप से जुड़े अन्य अपडेट लगातार हासिल करने के लिए हमें
facebook फेसबुक पर फॉलो करे.
और
facebook ट्विटर पर फॉलो करे.
"हस्तक्षेप"पाठकों-मित्रों के सहयोग से संचालित होता है। छोटी सी राशि से हस्तक्षेप के संचालन में योगदान दें।